search engine marketing

Search Engine Marketing | A to Z Guideline

Search Engine Marketing (SEM) কি?

SEM বা Search Engine Marketing, যেটা মূলত সার্চ ইঞ্জিনে একটা ওয়েবসাইটকে র‍্যাংকে ভালো অবস্থানে নিয়ে আসতে ব্যবহার করা হয়। ডিজিটাল মার্কেটিং এর দুনিয়ায় সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং খুবই জনপ্রিয়।

সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং হলো গ্রাহকদের কাছে আপনার ব্যবসাকে পৌঁছানোর এবং বৃদ্ধি করার সর্বাধিক অন্যতম নতুন ও কার্যকর উপায়। এটা মূলত একটি পেইড মেথড আপনার ওয়েবসাইটকে সার্চ ইঞ্জিনে র‍্যাংক করানোর বা প্রথম পেজে আনার।গুগল যে অ্যালগোরিদম ফলো করে আপনার ওয়েরসাইটকে র‍্যাংক করে সেটি হল- যেমন:

  • আপনার ওয়েবসাইট টি কতবার ভিউ হয়েছে।
  • কত জায়গায় এটা রেফার করা হয়েছে।
  • আপনার ওয়েবসাইট এর কোনো লিংক কতবার বা কত জায়গায় শেয়ার করা হয়েছে।

এই গুলোকে সাধারণত প্রাধান্য দেওয়া হয়।

উদাহরণসরূপ ধরে নেওয়া যাক, আপনার ১০০০ জন ফ্রেন্ড আছে। আপনি তাদেরকে বললেন যে তোমরা আমার ওয়েবসাইটে প্রতিদিন একবার করে ভিসিট করবা এবং আমার পোস্ট গুলো ভিউ করবা। এর ফলে কি যা হবে আপনার ওয়েবসাইট এর ভিউ অনেক বাড়বে। সার্চ ইঞ্জিন মনে করবে এই সাইটে প্রতিদিন অনেক মানুষ ভিসিট করে। এর ফলে আপনার ওয়েবসাইট এর র‍্যাংক বৃদ্ধি পাবে।

এখন কথা হল আপনার ১০০০ জন বন্ধু ছিল বলে আপনি এই কাজটি করতে পেরেছেন। যদি আপনার ১০০০ জন বন্ধু না থাকে তখন আপনি কি করবেন?

তখন আপনি অল্প কিছু টাকা নিয়ে কয়েকজন মানুষ কে রিকুয়েস্ট করতে পারেন যে তোমরা আমার ওয়েবসাইট প্রতিদিন একবার করে ভিসিট করবা এবং  আমি তোমাদেরকে এর বিনিময়ে ৫ টাকা করে দিবো। এইযে আপনি টাকা খরচ করে আপনার সাইটে ভিজিটর আনলেন,ভিউ বাড়ালেন যার জন্য আপনার সাইট সার্চ ইঞ্জিনে র‍্যাংক করলো এটাই হলো সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং বা SEM

নিচে কিছু সিস্টেম উল্লেখ করা হলো যেগুলো সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং এ ব্যবহার করা হয়:

  1. Paid search ads
  2. Paid search advertising
  3. PPC (pay-per-click)
  4. CPC (cost-per-click)
  5. CPM (cost-per-thousand impressions)

Search Engine Marketing (SEM) কেন শেখা উচিত?

সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং সব ধরনের ব্যবসায়ের জন্য একটি দুর্দান্ত সুযোগ তৈরী করেছে। ইন্টারনেটে এই সুযোগ তৈরির আগে ভোক্তাদের কাছে বিজ্ঞাপন পৌঁছানোর একমাত্র উপায় ছিল আদিমকালের বিজ্ঞাপন ব্যাবস্থা।তবে ইন্টারনেটের দ্রুত বিকাশের ফলে ব্যবসায়ের জন্য নতুন সুযোগ এবং সম্ভাবনা তৈরী হয়েছে।

আজকের ইন্টারনেট এবং ওয়েবসাইট এর যুগে কাস্টমারগণ তাদের জিনিস পত্র কেনার ক্ষেত্রে এবং বিভিন্ন সুবিধা ভোগ করার জন্য প্রতিনিয়ত সার্চ ইঞ্জিনের দিকে ঝুঁকছে। সুতরাং এই সু্যোগকে কাজে লাগিয়ে যদি ইন্টারনেট এবং নিজস্ব ওয়েবসাইট বা ব্লগ এর সাহায্য নিয়ে যদি বিজনেস শুরু করা যায় এবং সঠিক ভাবে মার্কেটিং করে সার্চ ইঞ্জিনে র‍্যাংক করানো যায় তবে আপনি এটার মাধ্যমে ভাল কিছু আশা করতে পারেন এবং এটার মাধ্যমে ইনকাম শুরু করতে পারেন।

একটি সাম্প্রতিক সমীক্ষায় দেখা যায় যে প্রায় 90% ওয়েবসাইট এর ট্রাফিক জেনারেট হয় গুগল এবং ইয়াহু এর মতো বড় সার্চ ইঞ্জিন থেকে। এটির কারণেই প্রায় প্রতিটি ব্যবসায়ের মালিক বর্তমানে তাদের সাইট সার্চ ইঞ্জিনে র‍্যাংকে আনার চেষ্টা করছে। এক্ষেত্রে এসইএম হলো একটি সর্বোত্তম ভালো উপায় একটা ওয়েবসাইটকে দাড় করানোর জন্য।

ব্যাবসার ক্ষেত্রে সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং এর কিছু সুবিধা নিচে দেওয়া হলো:

  1. কাস্টমারগণ দ্রুত ব্যাবসার ব্রান্ড সম্পর্কে জানতে পারে। বর্তমানে এমন কোনো ব্যবসা নেই যেটা শুরু করার পরপরই সবার সামনে চলে আসে। এর জন্য মার্কেটিং দরকার। ব্যাবসাটাকে সবার সামনে আনার জন্য সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং একটি খুব গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম।
  2. এটি সঠিক জায়গায় বিজ্ঞাপন দিয়ে দ্রুত উপার্জন এর একটা খুব ভাল মাধ্যম।এটাতে আপনার সময় বাচবে এবং ভালো প্রোডাক্ট এর মাধ্যমে দ্রুত ইনকাম করতে পারবেন।
  3. সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং আপনার ব্যবসাকে দ্রুত বৃদ্ধি করতে পারে এবং জনপ্রিয়তার শীর্ষে নিয়ে যেতে পারে।
  4. এটি সঠিক সময়ে, সঠিক স্থানে এবং সঠিক লোকের কাছে আপনার প্রোডাক্ট এর ইনফরমেশন পৌঁছে দিতে সক্ষম।
  5. সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং এর মাধ্যমে আপনি আপনার টার্গেট কাস্টমারের কাছে আপনার পণ্যের বিজ্ঞাপন পৌঁছে দিতে পারবেন।
  6. এটি প্রচলিত প্রথার তুলনায় কম ব্যয়বহুল বিজ্ঞাপন ব্যাবস্থা।এক্ষেত্রে ১০,০০০ লোকের কাছে বিজ্ঞাপন পৌঁছানোর জন্য আপনাকে ১ লক্ষ টাকা প্রদান করতে হচ্ছে না।অনলাইন এর মাধ্যমে খুব কম খরচে আপনি এটা করতে পারেন।

সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং একটি শক্তিশালী মার্কেটিং সিস্টেম যেকোনো ব্যাবসাকে দ্রুত বৃদ্ধি করার জন্য। সুতরাং আপনি আপনার ব্যাবসাকে সম্ভাবনার শিখরে নিয়ে যাওয়ার জন্য সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং ব্যাবহার করতে পারেন।

সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং (SEM) এর গুরুত্ব প্রয়োজনীয়তাঃ

সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং (Search Engine Marketing) এর গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে বলে শেষ করা যাবে না। এক কথায় বলতে গেলে এভাবে বলা যায় অন-লাইন ব্লগিং, মার্কেটিং, ব্যবসার প্রচার ও অনলাইনে কোন বিষয়ে সফলতা অর্জনের জন্য SEO এর পাশাপাশি সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং এর বিষয় টা মাথায় রাখতে হবে। সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং না করে কোনভাবেই অনলাইনের কোন প্রোডাক্ট ভিত্তিক ব্যাবসাতে সাফল্য অর্জন করতে পারবেন না। তার কারণ হচ্ছে- ইন্টারনেটে সবাই সার্চ ইঞ্জিনের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় সকল বিষয় খুঁজে থাকেন। বিশেষ করে গুগল সার্চ ইঞ্জিনের ব্যবহার এত ব্যাপক, যার জন্য গুগল সার্চ ইঞ্জিন ব্যাবহার না করে কোনভাবে সফল হওয়ার উপায় নেই। সম্প্রতি সময়ের জনপ্রিয় ওয়েব ব্রাউজার Mozilla Firefox ও Google Chrome সহ আরেক অনেক Browser গুলির ডিফল্ট সার্চ ইঞ্জিন Google হওয়ার করনে গুগল সার্চ ইঞ্জিনের ব্যবহার আরও বেশী বেড়ে গেছে। কাজেই আপনার ব্লগ/ওয়েবসাইটটি সবার কাছে পরিচিত ও জনপ্রিয় করে তোলার জন্য সার্চ ইঞ্জিনের বিকল্প আর কিছু নেই।

সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং কীভাবে শেখা যায়?

বিভিন্ন মানুষ  বিভিন্ন কারণে সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং ব্যবহার করে,সেটা নির্ভর করে তাদের ব্যাক্তিগত চাহিদার উপর।আপনি যদি ছোট একটি ব্যবসায়ের মালিক হন তাহলে আপনি আপনার ব্যাবসাকে প্রসারিত করতে সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং এর সাহায্য নিতে পারেন।যারা সবেমাত্র একটি নির্দিষ্ট বিজনেসে প্রবেশ করেছে অথবা শিল্প এবং ব্র্যান্ড উপর কাজ করতে চায় তারাও এটা করতে পারেন।

তবে এগুলো করার আগে আপনাকে সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং সম্পর্কে ভালভাবে জানতে হবে এবং কিভাবে এটা কাজ করে সেটা শিখতে হবে। যদি আপনি এটা না শেখেন তাহলে আপনাকে কোনো এক্সপার্ট দিয়ে কাজগুলাও করিয়ে নিয়ে হবে। সেক্ষেত্রে আপনাকে মোটা অংকের টাকা গুনতে হতে পারে এবং মোটের উপর এটা একটা ব্যায়বহুল বিষয়।

আপনি যদি এটা নিজে শিখতে চান তাহলে আপনাকে সর্বপ্রথম সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং সম্পর্কিত বেসিক বিষয়গুলি ভালভাবে বুঝতে হবে। তারপর আপনাকে সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং এর মূল বিষয়গুলি অবশ্যই কোন ভাল একজন অভীজ্ঞ লোক বা প্রতিষ্ঠানের নিকট হতে শিখে নিতে হবে।

কোথা হতে সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং শিখবেন?

ভালভাবে সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং (Search Engine Marketing) শেখার জন্য দুই ধরনের উপায় রয়েছে। একটি হচ্ছে কোন অভীজ্ঞ ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের নিকট হতে শিখে নেয়া এবং অন্যটি হচ্ছে অনলাইন হতে ভালমানের বিভিন্ন ব্লগ/ওয়েবসাইট হতে শেখা অথবা অনলাইনে অনেক ভাল মানের পেইড ভিডিও পাওয়া যায়, এগুলো ক্রয় করে শিখতে পারেন। অন-লাইন হতে শেখার ক্ষেত্রে আপনাকে প্রচুর পরিমানে ধৈর্য্য ধারন করতে হবে। অন্যদিকে কোন ভাল প্রতিষ্ঠান থেকে শেখার ক্ষেত্রে অল্প সময়ে শিখে নিতে পারবেন।

তবে একটা কথা মনে রাখবেন, আপনি অনলাইন বা যে কোন প্রতিষ্ঠান হতে শিখুন না কেন অবশ্যই সেটি ভালমানের প্রতিষ্ঠান বা ভালমানের অন-লাইন ব্লগ হতে হবে। সম্প্রতি সময়ে সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং শেখানোর মত অনেক প্রতিষ্ঠানই হাতের কাছে রয়েছে, কিন্তু এদের মধ্যে ভালমানের প্রতিষ্ঠান পাওয়া খুব বড় একটা ব্যাপার। সুতরাং এটা ভালভাবে শেখার চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে, ধৈর্য্য হারালে চলবে না।

উপরের বিষয় গুলো মাথায় রেখে কাজ করতে থকেন সাফল্য আসবেই। ধন্যবাদ।

পোষ্টটি সম্পর্কে কোনো প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট করুন। আর পোষ্টটি ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করবেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *